সরিষার তেলের উপকারিতার কথা অনেকেই জানেন। এ তেল দিয়ে শুধু ত্বকই নয়- হৃৎপি-, পেশি, গাঁটের সমস্যা পর্যন্ত দূর করা  যায়। সরিষার তেল ভেষজ প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক। এটি ব্যবহারে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই এবং সহজেই হজমকারক।

বাজারে ৩ ধরনের সরিষা দানা পাওয়া যায় ঃ

১। দেশি মাঘী সরিষা ( সবচেয়ে ভাল )

২। শ্বেতী সরিষা

৩ । রাই সরিষা

সাথে আছে দেশের বাইরে থেকে আমদানী করা হাজার হাজার টন বিদেশী নিম্ন মানের সরিষা । বাংলাদেশের মানুষের ধারনা রঙ চকচকে + বেশী ঝাঁজ না হলে সেটা ভাল না কিন্তু দেশি মাঘী সরিষা তে ঝাঁজ কম গন্ধ কম রঙ ও চকচকে হয় না ।

তেলের রঙ ঝাঁজ +কম দামে উৎপাদনের জন্য সব ধরনের সরিষা মিশ্রণ করে মিল মালিক গন তেল ভাঙ্গায় + বিদেশ থেকে আনা নিম্ন মানের সরিষা তো আছেই ।

আপনারা যারা ডাঃ জাহাঙ্গীর এর ভিডিও দেখেছেন সুস্থ জীবন চাইলে + স্বাস্থ্য ভাল রাখতে চাইলে ভাল তেল রান্নায় ব্যবহার করতেই হবে । মানে যে তেলের উৎপাদন প্রক্রিয়ায় যত কম হিট হয় সেই তেল তো ভাল মানে আমাদের দেহের জন্য ভাল ।

আমরা সেই দিক মাথায় রেখে আপনাদের জন্য ঘানির তেল উৎপাদন ও বাজারজাতকরন করছি । সাধারনত তেল উৎপাদন পক্রিয়ার ২ টা মেশিন ব্যবহার করা হয়

১। যান্ত্রিক ঘানি

২ । স্পিনার

যান্ত্রিক ঘানিতে চাম কম দিয়ে দানা ভেঙ্গে ফেলা হয় এতে চাপ কম দেয়া হয় সুতরাং হিট ও কম হয় এ জন্য এখান থেকে যে তেল বের হয় সেটা উৎকৃষ্ট ।

ঘানিতে ৫০% তেল Extract করা হয় বাকি ৫০% স্পিনার মেশিনে ২ বার চাপ দিয়ে বের করা হয় । স্পিনার মেশিনে হিট অনেক বেশী হয় ফলে তেল পুড়ে যায় যার ফলের তেলের মান কমে যায় । গ্রাম্য অনেক মিলে দেখবেন ছোট স্পিনার ওখানে তেল আরও হিট হয় । কেমন হিট হয় পরিক্ষার জন্য যে খৈল বের হয় সেটা হাতে নেবেন আমি সিউর আপনি ওটা হাতে নিয়ে রাখতে পারবেন না ।

দেশে সয়াবিন তেল ব্যবহার চালু হবার কয়েক বছর পর থেকেই দেশের মানুষের মধ্যে মহামারী আকারে হাইপ্রেশার, ডায়াবেটিস, হার্টে ব্লক এ ধরনের বহু সমস্যা শুরু হয়েছিলো যেটি এখনো অব্যাহত আছে।

যারা রান্নার তেল পরিবর্তন করেছেন তারা শারীরিক অনেক সমস্যা থেকে মুক্ত হয়েছে আলহামদুলিল্লাহ ডাঃ জাহাঙ্গীর এর ভিডিও গুলা দেখলেই প্রমান পেয়ে যাবেন

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “কাঠের ঘানি ভাঙ্গা সরিসার তেল (মেশিন)”

Your email address will not be published. Required fields are marked